ছেঁউড়িয়ায় লালনের তিরোধান দিবসের সব অনুষ্ঠান স্থগিত

শিল্প ও সাহিত্য ডেস্ক :: বাউল সম্রাট ফকির লালন শাহের তীর্থস্থান কুষ্টিয়ার ছেঁউড়িয়ার আখড়াবাড়িতে এবার বসছে না সাধুদের মিলনমেলা। লালন শাহের তিরোধান দিবসে প্রতি বছর তিন দিনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আসছিল কুষ্টিয়া লালন একাডেমি।

করোনা পরিস্থিতির কারণে আগামী ১ কার্তিক (১৭ অক্টোবর) এবারের ১৩০তম তিরোধান দিবসের সব আয়োজন বন্ধ ঘোষণা করেছে কুষ্টিয়া লালন একাডেমি।

রোববার বিকাল ৪টায় কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলন করে এমন সিদ্ধান্তের কথা জানান লালন একাডেমির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন।

সভায় উপস্থিত ছিলেন- পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাত, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) লুৎফুন নাহার ও লালন একাডেমির সদস্য সচিব ও এনডিসি তাইফুর রহমান প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন বলেন, কুষ্টিয়ায় এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৭১ জন রোগী মৃত্যুবরণ করেছেন এবং বিপুলসংখ্যক মানুষ আক্রান্ত অবস্থায় আছেন। আশঙ্কা করা হচ্ছে যদি বড় ধরনের গণজমায়েত করা হয়, তাহলে করোনা পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ রূপধারণ করবে। এমন পরিস্থিতি বিবেচনায় লালনের মাজার প্রাঙ্গণে প্রতি বছরের মতো এ বছর বাউল সম্রাট ফকির লালন শাহের ১৩০তম তিরোধান দিবস পালন করা সম্ভব নয়।

পুলিশ সুপার তানভীর আরাফাত বলেন, লালনের প্রতি গভীর ভালোবাসা থাকার পরও আমরা তিরোধান দিবসের অনুষ্ঠান আয়োজন করতে পারছি না। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আগামীতে আরও বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান আয়োজন করব। এজন্য তিনি সব ভক্ত, সাধক ও গুণীজনদের সহযোগিতা কামনা করেন।

শেয়ার করুন